Home / প্রবাসী নিউজ / মালয়েশিয়ায় ব’জ্রপাতে এক বাংলাদেশির মৃ’ত্যু

মালয়েশিয়ায় ব’জ্রপাতে এক বাংলাদেশির মৃ’ত্যু

মালয়ে’শিয়ায় ব’ন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে বজ্র’পাতে এক বাংলাদেশির মৃ’ত্যু হয়েছে। তার নাম মো. তারেক পরামানিক (৩০) নামে। তবে তার দেশের বাড়ির ঠিকানা জানা যায়নি।মঙ্গ’লবার (২৩ জুন) বিকেল ৫টার দিকে দেশটির টে’রেংগানুর কেমা’মান জেলার বান্ডার সিনি নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

কেমামান জেলা পুলিশ সুপার হানিয়ান রামলান জানান, নিজের ঘর থেকে ১০০ মিটার দূরে বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে ব’জ্রপা’তে ঘটনাস্থ’লেই তার মৃ’ত্যু হয়।দুর্ঘট’নাস্থলের পাশে থাকা বাংলাদেশি আরিফুল বলেন, হঠাৎ বিকট শব্দ শুনতে পাই। এগিয়ে এসে দেখি আমার দেশের মা’নুষ মা’রা গেছে। নিহত বাংলা’দেশির মরদেহ ময়নাতদ’ন্তের জন্য কে’মামান হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

আরোও পড়ুনঃ যুক্তরাজ্যে মানব’শরীরে করোনা ভ্যা’কসিনের ট্রায়াল শুরু
যুক্তরাজ্যে মানবশ’রীরে করো’নাভাইরাসের (কোভিড-১৯) ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু হয়েছে। ইমপে’রিয়াল কলেজ লন্ডন উদ্ভাবিত এই ভ্যা’কসিন স্বেচ্ছা’সেবীদের শরীরে প্র’য়োগ করা হচ্ছে। খবর বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী কয়েক সপ্তাহে অন্তত ৩০০ জনে’র শরীরে এই ভ্যা’কসিন প্রয়োগ করা হবে। এর আ’গে পশুর শরীরে এই ভ্যা’কসিন প্রয়োগ করা হলে তা নিরাপদ ও শরীরে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষম’তা বাড়াতে যথেষ্ট কার্য’করী বলে প্রমা’ণিত হয়েছে।

করো’নাভাইরাসের এই ভ্যাকসিন তৈরিতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ইমপেরিয়াল কলেজ লন্ড’নের প্রফেসর রবিন শ্যাটক ও তার সহকর্মীরা। ইম’পেরিয়াল কলেজের এই ভ্যা’কসিন প্রথম প্রয়োগ করা হয় স্বেচ্ছাসেবী ক্যাথির (৩৯) শরীরে। ক্যাথি একটি আর্থিক প্রতি’ষ্ঠানে কর্মরত। ভাইরাসের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধে সামিল হতে শরীরে ভ্যা’কসিন নিয়েছেন তিনি।

ক্যাথি বলেন, ‘আমি আসলে বুঝতে পেরেছি যে, করোনার ভ্যা’কসিন আবি’ষ্কার না হওয়া পর্যন্ত মানুষের জীবন স্বাভাবিক হবে না। সেই উপলব্ধি থে’কেই এই অগ্রসরমূলক কর্ম’কাণ্ডে (ভ্যা’কসিনের ট্রায়াল) অংশ নিয়েছি।’ ইমপেরিয়াল ক’লেজের ভ্যাকসিন উদ্ভা’বন সং’শ্লিষ্টরা বলেছেন, এই পর্বের ট্রা’য়াল শেষ আগামী অক্টো’বরে ৬ হাজার মানুষের শরীরে এই ভ্যা’কসিন প্রয়োগের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

ইমপেরিয়াল টিম আশা করছে, ২০২১ সালের শুরুতে যুক্তরাজ্য ছাড়াও অন্যান্য রাষ্ট্রগুলোতে এই ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে সক্ষম হবেন তারা।বর্তমানে বিশ্বে প্রায় ১২০টি করোনা ভ্যাকসিনের ওপর গবেষণা চলছে। ই’তোমধ্যে অক্সে’ফোর্ড ইউনিভার্সিটির বিশেষজ্ঞরা মানবশরীরে তাদের উদ্ভাবিত ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেছেন।

চীনের বিজ্ঞানীদের তৈরি অন্তত ছয়টি সম্ভাব্য করোনা ভ্যা’কসিন মানবদেহে পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে। শনিবার চাইনিজ একাডেমি অব মেডি’কেল সায়েন্সেসের ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল বায়োলজি (আইএমবিসিএএমএস) তাদের তৈরি একটি ভ্যাক’সিন দ্বিতীয় দফায় মান’বদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়ে’ছে বলে জানিয়েছে। আইএ’মবিসিএএমএ’সের এই ভ্যা’কসিনটি চীনের তৈরি ছয়টি ভ্যাকসিনের একটি।

গত বছরের ডি’সেম্বরে চীনের উহান থেকে বিশ্বের দুই শতাধিক দেশে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী এই ভা’ইরাস। প্রথম দিকে ইউ’রোপ এবং আমে’রিকায় ব্যাপক তাণ্ডব চালালেও বর্তমানে এশিয়া, উত্তর আমে’রিকা এবং আফ্রিকা হয়ে উঠছে ভাই’রাসটির উপকেন্দ্র। অতীতে সং’ক্র’মণের দৈনিক সব রে’কর্ড ভেঙে প্রত্যে’ক দিন নতুন রেক’র্ড গড়ছে।

About admin

Check Also

কুয়ালালামপুর-ঢাকা রুটে বিমানের বিশেষ ফ্লাইট চালু ১৮ জুলাই

মালয়েশিয়ার কুয়ালা’লামপুর থেকে ঢাকা রুটে ফ্লা’ইট চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। আগামী ১৮ জুলাই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *