Home / News / মালয়েশিয়ায় শ্রমিক বৈধকরণে জা’লিয়াতি করলে যে শাস্তি হতে পারে

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক বৈধকরণে জা’লিয়াতি করলে যে শাস্তি হতে পারে

মালয়েশিয়ায় অ’বস্থানরত অ’বৈধ প্রবাসী কর্মীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া চলছে। গত সোমবার থেকে শুরু হওয়া ‘রিকেলিব্রেশন’ প্রক্রিয়া কার্যক্রম চলবে আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত।নির্মাণ, উৎপাদন, চাষ ও কৃষি এ ‘চারটি খাতে বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশের অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের বৈধতার জন্য মালিক পক্ষকে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। একই সঙ্গে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অবৈধ অভিবাসীরা চাইলে ‘রিটার্ন রিকেলিব্রেশন’ প্রক্রিয়ায় নিজ দেশে ফিরে যেতে পারবেন।

সরকারের নতুন এই নীতিমালায় শ্রমিক বৈধকরণ নিবন্ধনে আগের মতো কোনো ভেন্ডর অথবা এজেন্ট নিয়োগ দেওয়া হয়নি।শুধুমাত্র মালিকপক্ষ দেশটির শ্রম ও মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবে। এক্ষেত্রে যদি তৃতীয় পক্ষ, এজেন্ট বা ‘দালাল শ্রমিক’দের সঙ্গে কোনো রকম প্রতারণা বা জালিয়াতি করে তাহলে দেশের প্রচলিত আইনে বিচার প্রক্রিয়া চলবে বলে জানিয়েছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় জানায়, ‘রিকেলিব্রেশন’ প্রক্রিয়ার কার্যক্রমে তৃতীয় পক্ষের কোনো গোষ্ঠী সাধারণ শ্রমিকদের সাথে প্র’তারণা বা জালিয়াতি করলে দেশটির বেস’রকারি কর্মসংস্থান সংস্থা জাতীয় সংবিধান ১৯৮১ সালের ২৪৬ এর ৭ ধারায় ‘প্রতারকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে। অপরাধ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ ৩ ব’ছর কারাদণ্ড এবং ২ লাখ মালয় রিঙ্গিত যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪২ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে।

এর আগে ২০১৫ সালে রি-হায়ারিং নামে অনেকটা একই ধরণের একটা কর্মসূচি শুরু করেছিল মালয়েশিয়ার সরকার। সেইবার প্রায় আড়াই লাখ বাংলাদেশি বৈধতা হওয়ার সুযোগ পেলেও কয়েক লাখ বাংলাদেশি বৈধতার সুযোগ পায়নি। এবারও ‘রিকেলিব্রেশন’ প্রক্রিয়ার বৈধ হওয়ার জন্য আরও ১৪টি দেশের অবৈধ কর্মীদের সঙ্গে বাংলাদেশি কর্মীদের প্রতিযোগিতায় নামতে হবে।

মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় (কেএসএম) শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছে, বৈধকরণ প্রক্রিয়াটি চালু হওয়ার পর থেকে তারা বিদেশী কর্মী নিয়োগের জন্য ১৭,২৯২টি কোটাসহ নিয়োগকর্তাদের কাছ থেকে ১১৩টি আবেদন জমা পড়েছে।

Check Also

শিগগির নারী বিচারক নিয়োগ দেবে সৌদি

শিগগির নারী বিচারক নিয়োগ দিতে যাচ্ছে সৌদি আরব। দেশের সব ক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়নের অংশ হিসেবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *